মহম্মদপুরে ২২দিনেও খোঁজ হয়নি স্কুল ছাত্রী বৃষ্টির

মাগুরার মহম্মদপুর উপজেলায় এক স্কুলছাত্রী ২২ দিন ধরে নিখোঁজ রয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।
নিখোঁজ শিক্ষার্থী হলো দীঘা ইন্তাজ মোল্যা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের অষ্টম শ্রেণির শিক্ষার্থী বৃষ্টি বাড়ই (১২)। তার বাড়ি উপজেলার দীঘা ইউনিয়নের আউনাড়া গ্রামের পূর্বপাড়ার অরুন কুমার বাড়ইয়ের মেয়ে। অরুন পেশায় কামার। দুই বোন এক ভাইয়ের মধ্যে বৃষ্টি সবার ছোট। বড় বোনের বিয়ে হয়েছে। ভাই বিপ্লব ঢাকায় একটা কোম্পানীতে চাকরি করেন।
নিখোঁজ শিক্ষার্থীর পরিবারের দাবি, ২৫ জুন সকাল আটটার দিকে বাড়ির বাইরে শিক্ষকের কাছে প্রাইভেট পড়তে গিয়ে আর বাড়ি ফেরেনি। এ ব্যাপারে শিক্ষার্থীর মা আশা লতা রানী বাড়ই ২৮ জুন মহম্মদপুর থানায় সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেন। নিখোঁজ শিক্ষার্থী স্কুলের গণিত শিক্ষক পান্নু মিয়ার কাছে প্রাইভেট পড়ত। শিক্ষক পান্নু মিয়া বলেন, স্কুলের একটি কক্ষে তিনি পড়ান। ঈদের আগের দিন হওয়ায় তিনি ওই দিন প্রাইভেট পড়াননি। বৃষ্টির বাবা অরুন কুমার বাড়ই কান্না জড়িত কন্ঠে বলেন,‘২২দিন পার হচ্ছে মেয়ের কোন খোঁজ নেই। চেয়ারম্যান, র‌্যাব পুলিশ সবাইকে জানিয়েছি। কেউ কোন খোঁজ দিতে পারছে না। মেয়ের চিন্তায় রাতে ঘুম হয়না।’
এ বিষয়ে মহম্মদপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. তরীকুল ইসলাম বলেন, ‘নিখোঁজ ছাত্রী স্কুলের শিক্ষকের কাছে প্রাইভেট পড়তে গিয়ে নিখোঁজ হয়েছে। এ ঘটনায় ছাত্রীর মা থানায় সাধারণ ডায়েরি করেছেন। আমরা বিষয়টি জানার পর ছাত্রীর সন্ধানে চেষ্টা চালাচ্ছি।

About Avi Sharma

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Translate »