1500193453

ইতালিতে বাংলাদেশি তরুণীর আন্তর্জাতিক পুরস্কার লাভ

ইতালিতে বাংলাদেশি তরুণী তাহমিনা ইয়াসমিন শশী তরিনো ইন্টারন্যাশনাল বুক ফেস্টিভাল পুরস্কার লাভ করেছেন।

৩০ বছর ধরে ইন্টারন্যাশনাল বুক ফেয়ার তরিনো সেরা লেখা প্রতিযোগিতার আয়োজন করে আসছে।

এরই ধারাবাহিকতায় প্রতি বছর বিভিন্ন দেশের ভাষাভাষী লেখক ও সাংবাদিকদের লেখা নিয়ে এ প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয়।

এ বছর এই প্রতিযোগিতায় প্রায় ৪ হাজার লেখক ও সাংবাদিক অংশগ্রহণ করে। এর মধ্যে এবার এ প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহনকারী বিভিন্ন দেশের ১০ জন সেরা লেখককে তরিনো ইন্টারন্যাশনাল বুক ফেস্টিভাল পুরস্কার দেন।

বাংলাদেশি তাহমিন সেই ১০ জন সেরা লেখকদেরই একজন হওয়ার গৌরব অর্জন করেছেন। শশীই একমাত্র বাংলাদেশি যিনি এই অসামান্য পুরস্কারে ভূষিত হলেন।

শশী’র সঙ্গে আরো যারা এই পুরস্কার পেয়েছেন তারা হলেন- মনিয়া ক্রিমালদি (ইতালি), মেলিতা ফারকোভিক (ক্রোয়েশিয়া), ফাতিমা ইযাহরা গারগুয়েক (মরক্কো), আইজা জুলিকা (লিথোনিয়া), রোকসানা লাজার (রোমানিয়া), সানতিনা লাজ্জারা (ইতালি), মারইয়ামা মারকেলা লিউক (আর্জেন্টিনা), মালভিনা সিনানী (আলবেনিয়া) ও রোবার্তা ভিলা (ইতালি)।

প্রতিোযোগিতায় শশীর লেখার শিরোনাম ছিল ‘ভ্রূণহত্যা’। ইতালিয়ান ভাষায় যার নাম তি পারলেরো দেলা লুনা।

ইন্টারন্যাশনাল বুক ফেয়ার তরিনো শশীর লেখাটা বই আকারে বের করেছে।

শশী’র গ্রামের বাড়ি শরীয়তপুর জেলার কার্তিকপুর। বাবার নাম হাবিবুর রহমান, মা হাসিনা হাবিব। বর্তমানে তিনি ইতালি ভেনিস শহরে বসবাস করছেন।

সম্প্রতি তরিন ইন্টারন্যাশনাল বুক ফেস্টিভাল থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে পুরস্কার গ্রহণ করেন শশী।

শশী কমনি দি ভেনিস, ইমিগ্রেশন অফিসে একজন অনুবাদক হিসেবে কাজ করেন। তিনি ইতালি ভাষা শেখান বিভিন্ন দেশের ভাষাভাষী মানুষদের।

চাকরির পাশাপাশি ইউনিভার্সিটি ক্যাথলিকা দেল সাকরো কোওরে (Università Cattolica del Sacro Cuore ) তে সাংবাদিকতায় পড়াশোনা করছেন শশী।

ছোটবেলা থেকে লেখালেখি করতেন শশী। তার লেখা কবিতা ও ফিচার বাংলাদেশের বিভিন্ন পত্র পত্রিকায় ছাপা হয়েছে।

পড়াশোনা শেষ করে তিনি বাংলাদেশকে উপস্থাপন করতে চান এক ভিন্নরূপে। শুধু তাই নয় তিনি চান ইতালি থেকে পড়াশোনা শেষ করে বাংলাদেশে ফিরে যেতে। এরপর ইতালি থেকে শেখা নতুন বিষয় নিজের দেশকে উপহার দিতে।

About Avi Sharma

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Translate »